Skip to content
Home » হরতাল PDF | সুকান্ত ভট্টাচার্য কবিতা রিভিউ | Hartal by Sukanta

হরতাল PDF | সুকান্ত ভট্টাচার্য কবিতা রিভিউ | Hartal by Sukanta

হরতাল সুকান্ত ভট্টাচার্য গল্প কবিতা রচনা সমগ্র pdf

১. লেজের কাহিনীঃ

সোভিয়েত শিশু সাহিত্যিক ভি বিয়াক্কির টেইলস গল্পের অনুবাদ করে সুকান্ত ‘লেজের কাহিনী’ গল্পটি লিখেছেন। একটি মাছির লেজ চাই। সব জানোয়ারের মুরুব্বি মানুষ। তাই মানুষের কাছে এসে মাছি বায়না ধরল, লেজ দাও। মুরুব্বি বলল, লেজ যাদের আছে তাদের খুবই প্রয়োজন লেজের। কে তোমাকে লেজ দেবে? মাছি শুনল না। অনেক তর্ক-বিতর্কের পর যার লেজের প্রয়োজন নেই, শুধুই সৌন্দর্যের জন্য তার কাছে গিয়ে লেজ চাইবার অনুমতি দেয়া হল মাছিকে ।

২. হরতালঃ

‘হরতাল’ একটি চমৎকার গল্প। এ হরতাল রেলের মজুরদের হরতাল নয়৷ রেল-ইঞ্জিনের সভাপতিত্বে লাইন, ঘড়ি, সিগনাল, চাকা ইত্যাদি হরতাল। সকলে হরতালের ব্যাপারে একমত। কিন্তু সব ঠিক থাকলেও শাসকগোষ্ঠী তার স্বার্থবিরোধী সকল উদ্যোগ পণ্ড করে দিতে ওস্তাদ। এজন্য ওদের সভায় কতিপয় দালাল ঘড়ি আর বাঁশিকে সভা ভাঙবার জন্য পাঠানো হয়েছিল। ওদের হট্টগোলে শেষ পর্যন্ত সভা আর সেদিন হল না।

শ্রমিক শ্রেণীর বাঁচার সংগ্রাম যত তীব্রতর হচ্ছে শোষকগোষ্ঠীও তত বেশি উদ্যোগ নিচ্ছে মরণ কামড় দেবার জন্য। এরা সংখ্যায় কম, এদের ভয়-বেশি; তাই এরা এত হুঁশিয়ার। –

আরও পড়ুনঃ অভিযান PDF | সুকান্ত ভট্টাচার্য | বই রিভিউ | Abhijan by Sukanta

৩. ষাঁড়-গাধা-ছাগলের কথাঃ

গল্পটিও পশুকে নিয়ে লেখা, এখানেও মালিক আর শ্রমিকের চিরন্তন দ্বন্দ্ব উপস্থিত। উপস্থিত শ্রমিকদের মধ্যে নেতৃত্ব নিয়ে বিভেদ এবং শেষ পর্যন্ত মালিকের কাছে আত্মসমর্পণ ।

একলোকের ষাঁড়-গাধা-ছাগল উপরোক্ত তিনটি প্রাণীই ছিল। লোকটির অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে শেষ পর্যন্ত এরা সভা ডাকল । ছাগলকে সাধারণ সম্পাদক করা হলো। কিন্তু সভাপতি কে হবে? এ নিয়ে ষাঁড় আর গাধা একমত হতে পারল না। ষাঁড় গাধা একজন মোড়লের কাছে গিয়ে জানতে চাইল কে যোগ্য! মোড়ল ছিল মালিকের বন্ধু। তাই মালিকের স্বার্থে এদের দুজনকে স্বীয় গোয়াল ঘরে বন্দী করে রাখল ।

ষাঁড়-গাধার দেবী দেখে ছাগল তার বাচ্চাদের নিয়ে মালিকের বাড়ি ছেড়ে বনের দিকে চলে গেল। আর ফিরল না। সুকান্তর ভাষায়- “কারণ অনেক মহাপুরুষের মত ছাগলটারও একটু দাড়ি ছিল।’

ষাঁড়-গাধার কি হল? পরদিন মালিকের হাতের পিটুনি খেয়ে আবার হাটতে লাগল । পুরানো শৃঙ্খলকে অবনত মস্তকে মেনে নিল। এজন্য উপদেশ হল, “নিজের কাজের মীমাংসা করতে অন্যের কাছে কখনো যেতে নেই”।

আরও পড়ুনঃ পূর্বাভাস কাব্যগ্রন্থ PDF | সুকান্ত ভট্টাচার্য | Purbavas by Sukanta

৪. দেবতার ভয়ঃ

দেবতাদের ভয় একটি নাটকীয় ও অনন্য সুন্দর গল্প। দেবতারা মানুষের ভয়ে এখন সন্ত্রস্ত। এটমবোম, উড়োজাহাজ, দমকল, মরামানুষ বাঁচানোর কৌশল সবকিছুই মানুষ তার প্রয়োজনে লাগাচ্ছে। পরাধীন দেশ হলে দেবতারা কিছু ক্ষতি করতে পারেন । কিন্তু স্বাধীন দেশে একেবারে ঢুকতেই পারে না।

তাহলে উপায়? দেবতারা মহাচিন্তায় পড়ে গেল। ব্রহ্মা উপায় বের করল। ইন্দ্র সমর্থন দিল। উপায় হল, মানুষে মানুষে ঝগড়া বিবাদ লাগানো। নিজেরা নিজেরা ঝগড়া বিবাদ করে মারা পড়বে; আমরাও (দেবতারা) নিশ্চিন্ত হবো। আমাদের স্বর্গ মানুষের হাত থেকে বেঁচে যাবে।

৫. রাখাল ছেলেঃ

রাখাল ছেলে একটি মিষ্টি প্রেমের গল্প। এ প্রেম গড়ে উঠেছিল দোয়েলের উদ্যোগে রাখাল ছেলে ও বনের হরিণীর মধ্যে। রাখাল ছেলে বাঁশি বাজাত, হরিণী গান গাইত ৷ কিন্তু বাধ সাধল শিকারী মানব। সে সুযোগ পেয়ে হরিণীকে হত্যা করল। রাখাল ছেলে মনে বড় কষ্ট পেল। মরণ বাঁশির খেলা পরিত্যাগ করে বন থেকে চলে গেল সে । দূর থেকে শুধু বলে গেল-

“ডেকো নাগো তোমরা আমায় চলে যাবার বেলা,
রাখাল ছেলে খেলবে না আর মরণ বাঁশির খেলা ।”

আরও পড়ুনঃ সুকান্ত সমগ্র | Sukanta Samagra PDF | সুকান্ত ভট্টাচার্যের কবিতা সমগ্র

Tags:
x
error: Content is protected !!