Skip to content
Home » সুকান্ত ভট্টাচার্যের জীবনী | ৪র্থ পর্ব | সম্পূর্ণ জীবন কাহিনী | Sukanta

সুকান্ত ভট্টাচার্যের জীবনী | ৪র্থ পর্ব | সম্পূর্ণ জীবন কাহিনী | Sukanta

সুকান্ত ভট্টাচার্য জীবনী ৪র্থ পর্ব গল্প কবিতা রচনা সমগ্র pdf

চ. গণমানুষের কবি সুকান্তঃ

এক সমাজ সচেতন কবি ও কর্মীর নাম সুকান্ত। একদিকে গণমানুষের কবি অপরদিকে সাচ্চা রাজনৈতিক কর্মী সুকান্ত। যাঁর জন্য অনেকদিন অপেক্ষমান ছিল আমাদের প্রিয় পৃথিবী। যার কথা শুনার জন্যে উন্মুখ হয়ে বসেছিলেন বিশ্ব কবিও।

জীবন চলার পথের বাস্তব অভিজ্ঞতাগুলোকে সমন্বয় করেই সৃষ্টি হয়েছে সুকান্তর প্রতিটি রচনা; সে রচনায় পাওয়া যায় বিপ্লব, বিদ্রোহ আর পরিবর্তনের আভাস। সিঁড়ি, একটি মোরগের কাহিনী, বোধন, রানার, চারাগাছ, কলম, সিগারেট, দেশলাইকাঠি ইত্যাদি কবিতার প্রতিটি শব্দ, প্রতিটি চরণই তাঁর বাস্তব অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ চিন্তার ফসল ।

সুকান্ত সমাজসেবক, কবি, রাজনীতিবিদ; অন্যদিকে মহাজীবনের সন্ধানে ব্যাকুল, অধীর এক হৃদয়। যে হৃদয় সংকীর্ণ দলাদলির রাজনীতির কথা বলে না। সে হৃদয়ে উচ্চারিত হয় শোষণমুক্ত সমাজ বিনীমানের স্লোগান।

মাটি ও মানুষের স্বপ্নময়ী পুরুষ সুকান্ত। সত্য ভাষণে উজ্জীবিত তাঁর পঙক্তিমালা । সুকান্ত এসেছিলেন এক ক্রান্তিলগ্নে-শিশুদেরকে তাদের পিতৃপুরুষের সবলতার গৌরবময় কাহিনী আর দুর্বলতার কলঙ্কমাখা কথা শুনাতে। (সুকান্ত এসেছিলেন নব প্রজন্মের কাছ থেকে বিরল প্রত্যাশা নিয়ে।) সুকান্ত বলতে এসেছিরেন—’সংস্কৃতি হোক প্রতিবাদের হাতিয়ার। শিল্পের জন্য শিল্প নয়। জীবনের জন্য শিল্প।’ সুহৃদবরেষু কবিতায় সুকান্তর বক্তব্য হল—’মানুষ কাব্যের স্রষ্টা, কাব্য কবি করে না সৃজন’

ন্যায়পরায়ণতা ও স্পষ্টবাদিতা ছিল সুকান্তর বড় গুণ। আর সে জন্যই তিনি নিঃসংকোচে এবং গর্বোদ্ধত শিরে সত্যকথা লিখে যেতে পেরেছেন তাঁর কবিতায় ।

সুকান্ত জানতেন সাম্রাজ্যবাদের ক্ষমতা অসীম। তাদের টাকা-পয়সা, প্রতিপত্তি, ভাড়াটে গুণ্ডা বাহিনী, প্রচার মাধ্যম, অস্ত্র এক কথায় কোন কিছুরই কমতি নেই । তবু তিনি যে আশায় বুক বেঁধে শোষণহীন সমাজের স্বপ্ন দেখতেন, শোষণ-অবসানের স্বপ্ন দেখতেন তা জনগণের জোরে। তিনি বিশ্বাস করতেন জনগণের সম্মিলিত সচেতন দৃঢ় ঐক্য একদিন অন্যায়ের সমাপ্তি ঘটাবেই। সমাপ্তি ঘটাবে জনতা তার নিজের স্বার্থেই।

জনতার প্রতি অবিচল আস্থা ছিল সুকান্তর ৷ জনতার শক্তির প্রতি আস্থা ছিল বলেই কবিতায় দুনিয়া বদলানোর কথা বলতে পেরেছেন সুকান্ত। প্রবল বিশ্বাসে ভর করে বলতে পেরেছেন-শোষণের, অত্যাচারের কালমেঘ ছিন্ন করে পূর্বাকাশে একদিন সত্যের লাল সূর্য উঠবেই।

দুর্নীতি ও শোষণের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে সত্যিকারের স্বাধীনতার সুফল প্রত্যেক মানুষের ঘরে পৌছে দেয়ার দৃঢ় সংকল্প গ্রহণ করতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সুকান্ত । জন্মভূমির প্রতি প্রবল আকর্ষণ ছিল সুকান্তর। দেশপ্রেমের শক্তিতে উন্মত্ত হয়ে ব্যক্তিস্বার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে প্রাণ বিসর্জন দেবার দৃঢ় অঙ্গীকারের কথাও দেশপ্রেমিক সুকান্ত ঘোষণা করেছেন ।

শোষকের রক্তচক্ষুকে ভ্রূকুটি হেনে উপেক্ষা করার প্রেরণাও আছে সুকান্তর অনেক কবিতায়। তাই নির্দ্বিধায় বলা যায়-কবি হিসেবে, মানুষ হিসেবে এবং একজন কর্মী হিসেবে সুকান্ত ছিলেন মাটি ও মানুষের খুব কাছাকাছি। আজ কোন ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর সার্টিফিকেটের প্রয়োজন নেই, ইতিহাস তার কষ্টিপাথরে যাচাই-বাছাই করেই বলছে-সুকান্ত মানুষের কবি ।

নিপীড়িত, নির্যাতিত ও শৃঙ্খলিত মানবাত্মার মুক্তি কামনায় আপোসহীন এক কবি-যাঁর নাম সুকান্ত। দুঃখী মানুষের গান রচনায় নিয়োজিত এক কবি-তাঁরও নাম সুকান্ত ।

আরও পড়ুনঃ যে বইগুলো জীবনে একবার হলেও পড়া উচিত | ৫০০ বইয়ের তালিকা

তথ্যসূত্রঃ 
১. ১৩৫৪ সালের ‘পরিচয় শারদীয়'তে শ্রীযুক্ত জগদীশ ভট্টাচার্য কর্তৃক লিখিত কবি কিশোর নামক প্রবন্ধের অংশবিশেষ।
২. বদরুদ্দীন উমর, ২৫শে বৈশাখ, ১৩৭৭, ঢাকা।
৩. বন্ধু অরুণাচলকে লেখা সুকান্তের দীর্ঘতম এক ঐতিহাসিক চিঠির অংশবিশেষ।
৪. মার্কসীয় অর্থনীতির মূল সূত্র : এল. লিয়ন তিয়েভ।
৫. সাহিত্য চর্চা, বুদ্ধদেব বসু ।
৬. রবি রশ্মি। চারু চন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায় এম. এ.।
৭. বাংলা সাহিত্যের খসড়া। শ্রী প্রিয় রঞ্জন সেন।
৮. সুকান্ত কবি ও মানুষ। সামাদ সিকদার। (ভূমিকার ক্ষেত্রে সামাদ সিকদারের সুকান্ত কবি ও মানুষ বইটি অনেক জায়গায় ব্যবহৃত হয়েছে। সামাদ সিকদারের কাছে ঋণ স্বীকার করছি।)
Tags:
x
error: Content is protected !!